Header Border

চাঁদপুর, শনিবার, ২রা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ (বসন্তকাল)

চান্দ্রায় বৃদ্ধকে গলা কেটে হত্যা – সন্দেহজনক দু’জনকে আটক

চাঁদপুর সদর উপজেলার ১২ নং চান্দ্রা ইউনিয়নে মজিবুর রহমান খান (৬০) নামে এক বৃদ্ধকে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত থাকার সন্দেহে পুলিশ ২ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

চাঁদপুর সদর উপজেলা ১২নং চান্দ্রা ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড বাসিন্দা মজিবুর রহমান মজু খান (৬০) নামে এক ব্যক্তিকে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। ২২ জুন মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বাখরপুরের ওই বাসিন্দা বিলে মাছ ধরতে গেলে দুর্বৃত্তরা তাকে গলা কেটে হত্যা করে। নিহতের স্ত্রী দীর্ঘ সময় অতিবাহিত হলেও স্বামী বাড়ি ফিরে না আসায় তাকে না পেয়ে অনেক খোঁজাখুঁজি করে। পরে ছেলে সহকারে রাত সাড়ে ৯টায় খুঁজতে বের হলে ক্ষেতের আইলের হাঁটু সমান পানির উপর গলাকাটা অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে ডাক-চিৎকার করলে স্থানীয় লোকজন ছুটে আসে। পরে ১২নং চান্দ্রা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খান জাহান আলী কালু পাটোয়ারীকে জানালে তিনি তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। চেয়ারম্যান খান জাহান আলী কালু পাটোয়ারী চাঁদপুর মডেল থানায় খবর দিলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুদীপ্ত রায় ও অফিসার ইনচার্জ আঃ রশিদ সঙ্গীয় পুলিশ সদস্যদের নিয়ে ঘটনাস্থলে রাতেই ছুটে যান। খুন হওয়া মজিবুর রহমান খানের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য চাঁদপুর মর্গে প্রেরণ করে। গতকাল ২৩ জুন বুধবার দুপুরে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুদীপ্ত রায় চাঁদপুর মডেল থানায় উপস্থিত হয়ে মজিবুর রহমান হত্যার বিষয়ে আটক উজ্জল বেপারীকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তিনি বলেন, আমরা হত্যার পর ঘটনাস্থল থেকে ২ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছি।

এদিকে চাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আঃ রশিদ বলেন, জবাই করে হত্যার খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে যাই। লাশ উদ্ধার করে আইনি ব্যবস্থার জন্য ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরন করেছি। ঘটনাস্থল থেকে সন্দেহজনক উজ্জল হোসের বেপারী (৪২) ও হাবিব মোল্লা (৩০)-কে আটক করে থানায় আনা হয়েছে। হত্যার কাজে ব্যবহৃত ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

চান্দ্রা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান খান জাহান আলী কালু পাটোয়ারী বলেন, আমার ইউনিয়নে এ ধরনের হত্যার ঘটনা এই প্রথম। যারা প্রকৃত অপরাধী তারা যেনো দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি পায়। নিরপরাধ কোনো ব্যক্তি যেন হয়রানির শিকার না হয়।

খুন হওয়া মজিবুর রহমান মজু খাঁনের ছেলে সোলায়মান খান বাদী হয়ে চাঁদপুর মডেল থানায় ৪ জনের নাম প্রকাশ করে অজ্ঞাত আরো কয়েক জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছে। তিনি জানান, আমার পিতা আমাদের বাড়ি থেকে প্রায় আধা কিলোমিটার দূরে মনা মাস্টারের পাট ক্ষেতে জাল দিয়ে মাছ ধরতে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে বের হয়। রাত ৯টা পর্যন্ত বাবা বাড়িতে না আসায় আমার মা আমাকে জানালে আমার ভাই ও বন্ধুদের নিয়ে খোঁজাখুঁজি করে রাত সাড়ে ৯টায় মনা মাস্টারের পাট ক্ষেতের হাটু পানিতে জবাই করাবস্থায় দেখতে পাই।

জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে মজিবুর রহমান মজু খাঁনের সাথে তার আপন ভাইদের সাথে সম্পত্তিতগত বিরোধ চলে আসছিলো। তারা বহুবার মজিবুর রহমান মজু খাঁনকে হত্যার হুমকি দিয়েছে। ধারনা করা হচ্ছে, এ সম্পত্তিগত বিরোধের জের ধরেই হত্যার ঘটনা ঘটেছে।

চাঁদপুর টেলিভিশন সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন


আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন
গণঅধিকার পরিষদের কচুয়া উপজেলা শাখার ইফতার ও দোয়া
ছাত্র অধিকার পরিষদের কচুয়া উপজেলা শাখা নতুন কমিটি ঘোষণা
বিএনপি-জামাত জনগণকে কিছু দিতে পারেনি বরং কেড়ে নিয়েছে – শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি
আজ চাঁদপুর মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলার উদ্বোধন
ফরিদগঞ্জে বন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ঘুষ নিয়ে সরকারি গাছ কর্তনের অভিযোগ
চাঁদপুর পৌর শহীদ জাবেদ উচ্চ বিদ্যালয় ‘কলেজে’ উন্নীত!

চাঁদপুর সদর এর আরও খবর

সম্পাদক : মোঃ মেহেদী হাসান